সংবাদ শিরোনামঃ
আলিফ মীম হাসপাতালের শেয়ার হোল্ডারদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি জেলা বিএমএ ও স্বাচিপের সভাপতি ডা: জাকির হোসেন উপজেলা নির্বাচনে প্রচারণায় অংশ না নিতে এমপি আনোয়ার খাঁনকে চিঠি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এডভোকেট রহমত উল্যাহ বিপ্লবের কিছু কথা লক্ষ্মীপুরের কৃতিসন্তান আনোয়ারুল হক ছলেমা খাতুন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কামাল ফার্মারের  জন্মদিনে তিনি সকলের আশির্বাদ /দোয়া প্রার্থী লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ হামছাদি ইউপি নির্বাচনে মীর শাহআলম চেয়ারম্যান নির্বাচিত লক্ষ্মীপুরের উপশহর দালাল বাজার ইউপি নির্বাচনে এডভোকেট নজরুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত অনিয়মে চাকরিচ্যুত হবেন কর্মকর্তারা, ফেক্ট- উপজেলা পরিষদ নির্বাচন লক্ষ্মীপুরে শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ পুরস্কার নিয়ে বির্তক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন লক্ষ্মীপুর -১ আসনের ড, আনোয়ার খান এম পির বড় ভাই আখতার খান রায়পুর উপজেলার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে পুনরায় অধ্যক্ষ মামুনের চেয়ারম্যান হওয়া প্রয়োজন লক্ষ্মীপুর জেলায় ৮ম: বারের মতো শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হলে মোঃ এমদাদুল হক দালাল বাজার ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে কাকে ভোট দিবেন? লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদপ্রার্থী কাজল খাঁনের গণজোয়ার লক্ষ্মীপুরের উপশহর দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী পাঁচজন,কে হবেন চেয়ারম্যান ? বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ওমান সুর শাখার সহ-সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেনের ঈদের শুভেচ্ছা, ঈদ মোবারক
মানবদেহের হরমোন নিয়ে কাল বিভিন্ন দেশের ডাক্তারদের অনলাইন আলোচনা

মানবদেহের হরমোন নিয়ে কাল বিভিন্ন দেশের ডাক্তারদের অনলাইন আলোচনা

মিজানুর শামীমঃ হরমোন (Hormone) হচ্ছে এক প্রকার জৈব -রাসায়নিক তরল যা শরীরের কোনো কোষ বা গ্রন্থি থেকে শরীরের একটি নির্দিষ্ট অংশে নিঃসরিত হয়। হরমোন হল একটি আভ্যন্তরীন উদ্দীপক। হরমোনের মাধ্যমে শরীরের অন্যান্য অংশের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে পরিবর্তনের সংকেত পাঠানো হয়। উদাহরণ স্বরূপ, বিপাকক্রিয়ার পরিবর্তনের জন্য অল্প একটু হরমোনই যথেষ্ট। এটি একটি রাসায়নিক বার্তাবাহক হিসেবে কাজ করে যা এক কোষ থেকে অপর কোষে বার্তা বহন করে। সকল বহুকোষীয় জীবই হরমোন নিঃসরণ করে।

জানা গেছে, এসোসিয়েশন অফ কিউটেনিয়াস সার্জনস অফ বাংলাদেশ সোসাইটির উদ্দ্যেগে চিকিৎসা বিজ্ঞানের অগ্রগতির লক্ষ্যে মানবদেহের হরমোনের উপর এক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হবে। করোনা ভাইরাসের কারনে ভার্চুয়ালভাবে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার রাত ৮ টায় অনুষ্ঠিতব্য এ ওয়েবিনারে বাংলাদেশ ছাড়াও ব্রাজিল ও ভারতের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগন উপস্থিত থাকবেন।

মানবদেহের হরমোন নিয়ে ভার্চুয়াল এ আলোচনার বিষয়টি নিশ্চিত করেন লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জের কৃতি সন্তান ও বর্তমানে লক্ষ্মীপুর জেলা সদর হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক মোঃ মাহমুদুর রহমান এবং তিনি এর মূল বক্তব্য উপস্থাপকও, এছাড়া ইতিপূর্বে তিনি ইতালি ও ভারতে চিকিৎসা বিজ্ঞানের উপর গবেষণা করেছেন বলে জানা যায়।

শনিবারে অনুষ্ঠিব্য এ ওয়েবিনারে বাংলাদেশ ছাড়াও ব্রাজিল ও ভারতের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগন উপস্থিত থাকবেন। প্যানেল অফ এক্সপার্ট হিসাবে উপস্থিত থাকবেন ব্রাজিলের গাইনিকোলজিস্ট ডাক্তার মেরিনা আলভেস, ভারতের চেন্নাই এপোলো হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ রামকুমার, সিলেট রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডাঃ শামীমা আক্তার, সহকারী অধ্যাপক ডাঃ আবদাল মিয়া, ঢাকার অরোরা স্কিন রিসার্চ সেন্টারের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডাঃ মাহবুব শাহীন।

অনষ্ঠান উপস্থাপনা করবেন ঢাকার ডেল্টা মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ আয়শা সিদ্দিকা এবং সভাপতিত্ব করবেন ঢাকার মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডাঃ মোঃ শহীদুল্লাহ

মানব দেহের হরমোন নিয়ে নিম্নে কয়েকটি উদাহরণ দেয়া হলঃ

পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের মোটা হওয়ার প্রবণতা অনেক বেশি। এমনটাই বলছে সমীক্ষা। এর অন্যতম কারণ হল হরমোন। মহিলাদের দৈনিক জীবনে ও জৈবিক চক্রে হরমোন যেভাবে প্রভাব ফেলে, ঠিক তেমনই ওজন বৃদ্ধিতেও হরমোন দায়ী।

থাইরয়েড হরমোনঃ হাইপোথাইরোডিজম মহিলাদের ওজন বাড়াতে অন্যতম কারণ। থাইরয়েড হরমোনের অভাবে হাইপোথাইরোডিজ়ম বাড়িয়ে থাকে। এর ফলে মানসিক পরিশ্রান্তি, কোষ্ঠকাঠিন্য, ওজন বেড়ে যায়।

প্রোজেস্টেটরনঃ মেনোপজ চলাকালীন নারী শরীরে আরও একটি হরমোনের মাত্রা কমে যায়। তা হল প্রজেস্টেরন। সরাসরি ওজন বাড়াতে সাহায্য না করলেও প্রজেস্টেরন হরমোনটি শরীরকে অতি মাত্রায় ফোলাতে সাহায্য করে। এমনকী, শরীরকে ভারীও করে তোলে এই হরমোন।

টেস্টোস্টেরনঃ অনেকেই পলিস্টিক ওভারিয়ান সমস্যায় ভোগেন। সেক্ষেত্রে দায়ী টেস্টোস্টেরন হরমোন। এই হরমোনের পরিমাণ বেড়ে গেলে পলিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোমের সমস্যায় দেখা যায়। ওজন বৃদ্ধি ঘটে। মুখের রোমের আধিক্য দেখা যায়। বাড়তে থাকে মেনস্ট্রুয়াল ডিসঅর্ডারের মাত্রাও।

ইস্ট্রোজেনঃ এই হরমোন শুধুমাত্র নারীদের শরীরেরই দেখা যায়।  মেনোপজ চলাকালীন ইস্ট্রোজেন হরমোনের পরিমাণ কমে যায়। এর ফলে ওজনও বেড়ে যায়। ইস্ট্রোজেনের প্রভাবে ফ্যাটের কোশগুলি ক্যালোরিতে পরিবর্তিত হয়। যা ওবেসিটির মতো সমস্যা ডেকে আনে।