সংবাদ শিরোনামঃ
আলিফ মীম হাসপাতালের শেয়ার হোল্ডারদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি জেলা বিএমএ ও স্বাচিপের সভাপতি ডা: জাকির হোসেন উপজেলা নির্বাচনে প্রচারণায় অংশ না নিতে এমপি আনোয়ার খাঁনকে চিঠি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এডভোকেট রহমত উল্যাহ বিপ্লবের কিছু কথা লক্ষ্মীপুরের কৃতিসন্তান আনোয়ারুল হক ছলেমা খাতুন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কামাল ফার্মারের  জন্মদিনে তিনি সকলের আশির্বাদ /দোয়া প্রার্থী লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ হামছাদি ইউপি নির্বাচনে মীর শাহআলম চেয়ারম্যান নির্বাচিত লক্ষ্মীপুরের উপশহর দালাল বাজার ইউপি নির্বাচনে এডভোকেট নজরুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত অনিয়মে চাকরিচ্যুত হবেন কর্মকর্তারা, ফেক্ট- উপজেলা পরিষদ নির্বাচন লক্ষ্মীপুরে শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ পুরস্কার নিয়ে বির্তক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন লক্ষ্মীপুর -১ আসনের ড, আনোয়ার খান এম পির বড় ভাই আখতার খান রায়পুর উপজেলার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে পুনরায় অধ্যক্ষ মামুনের চেয়ারম্যান হওয়া প্রয়োজন লক্ষ্মীপুর জেলায় ৮ম: বারের মতো শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হলে মোঃ এমদাদুল হক দালাল বাজার ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে কাকে ভোট দিবেন? লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদপ্রার্থী কাজল খাঁনের গণজোয়ার লক্ষ্মীপুরের উপশহর দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী পাঁচজন,কে হবেন চেয়ারম্যান ? বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ওমান সুর শাখার সহ-সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেনের ঈদের শুভেচ্ছা, ঈদ মোবারক
রাজধানীর গোল্ডেন গার্ল হেয়ার এন্ড বিউটি পার্লারের বিরুদ্ধে কাষ্টমারের ব্যাগ চুরির অভিযোগ

রাজধানীর গোল্ডেন গার্ল হেয়ার এন্ড বিউটি পার্লারের বিরুদ্ধে কাষ্টমারের ব্যাগ চুরির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার

রাজধানীর ১৫, ঢাকেশ্বরী রোড, লালবাগ, ঢাকায় অবস্থিত গোল্ডেন গার্ল হেয়ার এন্ড বিউটি নামক বিউটি পার্লারের বিরুদ্ধে যোগসাজশে কাষ্টমারের ব্যাগ চুরির অভিযোগ। অভিযুক্তের ভাষ্যমতে – বিগত ২৬-০৮-২০২২ ইং তারিখে বেলা আনুমানিক সকাল ৯ ঘটিকার দিকে ১৫ ঢাকেশ্বরী রোড, লালবাগ, ঢাকায় অবস্থিত গোল্ডেন গার্ল নামক বিউটি পার্লারে প্রবেশ করি। সেখানে সাজঘরে প্রবেশের আগে আমি বিল পরিশোধ করি (পে ফার্স্ট সিস্টেম) এবং আমার সিরিয়াল আসা পর্যন্ত অপেক্ষা আসনে অবস্থান করি। সাজঘরে যাওয়ার পূর্বে পার্লারের একজন কর্মী আমার ব্যাগটি তার হেফাজতে রেখে যেতে আশ্বস্ত করলে আমি তার নিকট আমার ব্যাগটি রেখে যাই। আমার ব্যাগে কিছু কাপড় ছিল এবং আরেকটি ছোটো ব্যাগ ছিল যাতে আমার জাতীয় পরিচয়পত্র, মোবাইল ফোন (যার বাজার মূল্য ৪০,০০০ টাকা), আনুমানিক ২০,০০০ ক্যাশ টাকা এবং ৬ ভরি পরিমাণ স্বর্ণ ছিল। সাজঘর থেকে বের হয়ে যখন আমি আমার ব্যাগটি খোজ করি, তখন বুঝতে পারি যে, ব্যাগটি খোয়া গেছে। কোন বিলম্ব না করে ওই কর্মীর নিকট আমার ব্যাগটির খোজ করলে সে সরাসরি তার নিকট ব্যাগটির হেফাজতের কথা অস্বীকার করে।

পরবর্তীতে চকবাজার থানায় গিয়ে অভিযোগ (জিডি নং-১৪৪১) করলে থানা থেকে এস আই মিজান ও তার টিম গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং প্রাথমিক তদন্ত করেন। সেখানকার বেশ কয়েকটি সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেন। সিসিটিভি ফুটেজ অনুযায়ী বেলা ১১.৫৪ মিনিটে আমার ব্যাগটি নিয়ে একজন বোরকা পরিহিত মহিলাকে খুব দ্রুততার সহিত চলে যেতে দেখা যায়। এখানে উল্লেখ্য যে, ওই মহিলাকে বেলা ১১.২০ মিনিটের দিকে খালি হাতে প্রবেশ করতে দেখা যায়। এলাকাবাসী জানায় এর আগেও এই পার্লারে অনেক চুরি হয়েছে এবং প্রতিনিয়ত চুরি হচ্ছে। এছাড়াও চকবাজার ও লালবাগ থানায় এই পার্লারের নামে বেশ কিছু চুরির অভিযোগ আছে। কোন এক কারণে পার্লার মালিক কাষ্টমারদের জিনিসপত্র রাখার জন্য কোন লকারের ব্যাবস্থা করেনি এবং পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরা (কাস্টমারদের অপেক্ষার স্থানে) রাখেনি। চুরির বিষয়টি নিয়ে তারা কোন প্রকার চিন্তিত নয়। তাছাড়াও তাদের পার্লারের ভিতরে কাস্টমারদের মালামাল নিজ দায়িত্বে রাখার জন্য লিখিত আকারে কোন নোটিশ নেই। প্রতিষ্ঠানের এমন ব্যাবহারে এলাকাবাসী এবং তদন্তকারী পুলিশ টিম সন্দেহ প্রকাশ করে এই মর্মে যে, এই ধরনের ঘটনা পার্লার কর্তৃপক্ষের যোগসাজশেই হতে পারে বা হচ্ছে।