সংবাদ শিরোনামঃ
দালাল বাজার ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে কাকে ভোট দিবেন? লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদপ্রার্থী কাজল খাঁনের গণজোয়ার লক্ষ্মীপুরের উপশহর দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী পাঁচজন,কে হবেন চেয়ারম্যান ? বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ওমান সুর শাখার সহ-সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেনের ঈদের শুভেচ্ছা, ঈদ মোবারক এমপি ও মন্ত্রী হতে নয় বরং মানুষের পাশে দাঁড়াতে আ.লীগ করি, সুজিত রায় নন্দী বাড়ছে ভুয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্ম্য, নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী পদক্ষেপ চাই বাড়ছে ভুয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্ম্য, নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী পদক্ষেপ চাই লক্ষ্মীপুরে বিনা তদবিরে পুলিশে চাকরি পেল ৪৪ নারী-পুরুষ দুস্থ মানবতার সেবায় এগিয়ে আসা “সমিতি ওমান ” কর্তৃক চট্টগ্রামে ইফতার সামগ্রী বিতরণ দলিল যার, জমি তার- নিশ্চিতে আইন পাস লক্ষ্মীপুরে প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে পবিত্র কুমার  লক্ষ্মীপুর সংরক্ষিত আসনের মহিলা সাংসদ আশ্রাফুন নেসা পারুল রায়পুরে খেজুর রস চুরির প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধকে মারধরের অভিযোগ লক্ষ্মীপুরে আলোচিত রীয়া ধর্ষণের বিষয়ে আদালতে মামলা তিনশ’ বছরের ঐতিহাসিক ‘খোয়াসাগর দিঘি’র নাম পরিবর্তনের কোন সুযোগ নেই, জেলা প্রশাসক’
কবর থেকে উঠল অক্ষত লাশ ॥ এলাকায় চাঞ্চল্য

কবর থেকে উঠল অক্ষত লাশ ॥ এলাকায় চাঞ্চল্য

ভিবি নিউজ ডেস্ক : ২৭ বছর আগে দাফনকৃত মঞ্জুর মল্লিক নামের এক ব্যক্তির অক্ষত অবস্থায় লাশের সন্ধান মিলেছে। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল শুক্রবার কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের মাজিহাট খা পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। মৃত ব্যক্তির ছেলে আবুল হোসেন বুড়ো। তার ঘর করার জন্য মাটি খুঁড়তে গেলে দীর্ঘ ২৭ বছর আগে দাফন করা তার বাবা মঞ্জুর মল্লিকের অক্ষত লাশ শনাক্ত করেছে। ২৭ বছর আগে মারা যাওয়া মঞ্জুর মল্লিকের অক্ষত লাশ নিয়ে ইতোমধ্যেই এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। অক্ষত অবস্থায় ২৭ বছরের পুরানো লাশ উদ্ধারের খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ওই এলাকায় ভিড় করে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় ২৭ বছর আগে অসুস্থতার কারণে মৃত্যুবরণ করেন মঞ্জুর মল্লিক। তিনি আওলাদে রাসুল সা. হযরত আবেদ সাহার খেদমত করতেন। মৃত্যুর পর তাকে স্থানীয় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মৃত্যুকালে মঞ্জুর মল্লিক এর বয়স ছিল (৭০), পেশায় তিনি ছিলেন একজন কৃষক। ওই ব্যক্তি ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতেন বলেও জানান এলাকার বৃদ্ধরা। স্বজনরা জানান, কবরস্থানের পাশে ঘর নির্মাণের জন্য খোঁড়াখুঁড়ি শুরু করা হলে শুক্রবার সকালে খোঁড়াখুঁড়ির সময় মঞ্জুর মল্লিক এর অক্ষত লাশ দেখতে পান শ্রমিকরা। মৃত মঞ্জুর মল্লিক এর ছেলে ছালামত লাশটি তার বাবার শনাক্ত করে জানান, প্রায় ২৭ বছর আগে তার বাবার স্বাভাবিক মৃত্যু হলে ওই স্থানে দাফন করা হয়। তবে লাশের শরীরে কোনো পরিবর্তন হয়নি। এমনকি কাফনের কাপড়েরও কোনো পরিবর্তন ঘটেনি। তিনি আরো জানান, তার বাবা ইসলামিক বিধিবিধান খুব ভালোভাবে মেনে চলতেন। এলাকাবাসী আরো জানায়, মৃত মঞ্জুর মল্লিক ওই এলাকার মধ্যে একজন ধার্মিক লোক ছিলেন। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে লাশটি সরিয়ে অন্য স্থানে দাফন করা হয়েছে। মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মস্তোফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মৃত ব্যক্তির ছেলে নতুন ঘর নির্মাণের জন্য মাটি কাটলে তার বাবার দাফন করা ২৭ বছর আগের লাশের কাফনসহ পাই। পরবর্তীতে সেই লাশ পরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অন্য স্থানে পুনরায় দাফন করা হয়েছে।