সংবাদ শিরোনামঃ
লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সড়কের পাশে আবর্জনার স্তূপ, নির্গত দুর্গন্ধ ও ধোঁয়ায় দূষিত হচ্ছে পরিবেশ লক্ষ্মীপুরে শিক্ষক- শিক্ষিকার বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়নে স্কুল শিক্ষক ও শিক্ষিকার অনৈতিক সম্পর্ক, শিক্ষিকার স্বামীর অভিযোগ লক্ষ্মীপুর ২ আসনের মানবিক এমপি নুরউদ্দিন আলিফ মীম হাসপাতালের শেয়ার হোল্ডারদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি জেলা বিএমএ ও স্বাচিপের সভাপতি ডা: জাকির হোসেন উপজেলা নির্বাচনে প্রচারণায় অংশ না নিতে এমপি আনোয়ার খাঁনকে চিঠি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এডভোকেট রহমত উল্যাহ বিপ্লবের কিছু কথা লক্ষ্মীপুরের কৃতিসন্তান আনোয়ারুল হক ছলেমা খাতুন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কামাল ফার্মারের  জন্মদিনে তিনি সকলের আশির্বাদ /দোয়া প্রার্থী লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ হামছাদি ইউপি নির্বাচনে মীর শাহআলম চেয়ারম্যান নির্বাচিত লক্ষ্মীপুরের উপশহর দালাল বাজার ইউপি নির্বাচনে এডভোকেট নজরুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত অনিয়মে চাকরিচ্যুত হবেন কর্মকর্তারা, ফেক্ট- উপজেলা পরিষদ নির্বাচন লক্ষ্মীপুরে শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ পুরস্কার নিয়ে বির্তক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন লক্ষ্মীপুর -১ আসনের ড, আনোয়ার খান এম পির বড় ভাই আখতার খান রায়পুর উপজেলার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে পুনরায় অধ্যক্ষ মামুনের চেয়ারম্যান হওয়া প্রয়োজন লক্ষ্মীপুর জেলায় ৮ম: বারের মতো শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হলে মোঃ এমদাদুল হক
লক্ষ্মীপুরে সৈয়দ আবুল কাসেমের অর্থায়নে সড়কের খানাখন্দ স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার

লক্ষ্মীপুরে সৈয়দ আবুল কাসেমের অর্থায়নে সড়কের খানাখন্দ স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার

মিজানুর শামীমঃ লক্ষ্মীপুরের বিভিন্ন সড়কের বেহাল অবস্হা। খানাখন্দে ভরা এসব সড়কে চলাচলকারী লোকজনের মধ্যে অসন্তোষের বিরাজ করছে বলে জানা গেছে। তাই বাদ্য হয়ে নিজেরাই স্বেচ্ছাশ্রমে এর সংস্কার কাজ শুরু করে দিয়েছে মর্মে খবর পাওয়া গেছে।

এতে সদর উপজেলার দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়নের গঙ্গাপুরে স্হানীয়দের সাথে নিয়ে ৬ জুলাই সোমবার স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তার খানা-খন্দ ভরাট করার কাজ নিজ অর্থায়নে শুরু করেন ঐ এলাকার কৃতি সন্তান বঙ্গবন্ধুর স্নেহধন্য সৈয়দ আবুল কাসেম।
জানা গেছে, সদর উপজেলার দালার বাজার থেকে রামগঞ্জ পর্যন্ত প্রায় ১৬ কিলোমিটার সড়কের বিভিন্ন জায়গা চলাচল অনুপযোগী হয়ে পরেছে। এ সড়কটি নির্মাণ বা সংস্কার কাজ নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে করায় ৩/৪ মাস পরে ভেঙে খানাখন্দ সৃষ্টি হয়ে বিপদজনক অবস্হা ধারন করে। এতে প্রায় সময়ই এ সড়কে নানানরকম দুর্ঘটনা ঘটে।

এই রাস্তায় চলাচলকারী নন্দনপুর এলাকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক ব্যক্তি জানান, আমাদের চলাচলের গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি নির্মাণ/সংস্কার করাকালীন সব সময় চরম দুর্নীতি হয়। টেন্ডার অনুযায়ী কাজ হয় না। এতে করে লাভ হয় রাস্তা নির্মাণ/সংস্কার সংশ্লিষ্ঠ দুর্নীতিবাজ ব্যক্তিদের। আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে রাস্তাটির করুন অবস্হার কথা অনেকবার বলার পরেও তারা এব্যাপারে গুরুত্ব দেয় না।

আরো জানা গেছে, গুরুত্বপূর্ণ এই সড়ক দিয়ে রামগন্জ, রায়পুর ও সদর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ ও বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের হরেকরকম মালামাল পরিবহন করা হয়। খানাখন্দের কারণে তাদের এ পথে চলতে সব সময় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।


অবশেষে স্থানীয় গঙ্গাপুর নিবাসী বিশিষ্ট সমাজ সেবক সৈয়দ আবুল কাশেমের অর্থায়নে এলাকার ১৫/২০ জন যুবক স্বেচ্ছাশ্রমে সড়কটিতে চলাচল টিকিয়ে রাখতে নিজেরা সংস্কারের উদ্যোগ নেয়। তারা ৫ জুলাই সোমবার দালাল বাজার-রামগন্জ এ সড়কের নন্দনপুর-গঙ্গাপুর অংশের প্রায় এক কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের কাজ নিজেরা করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশিষ্ট সমাজ সেবক সৈয়দ আবুল কাশেম বলেন, রায়পুর-রামগন্জ ও লক্ষ্মীপুর সদরে যাওয়ার গুরুত্বপুর্ণ বেহাল সড়কটি সংস্কারের জন্য একাধিকবার এলজিইডি প্রকৌশলীকে বললেও তিনি কর্নপাত করেনি। তাই নিজের টাকা দিয়ে এলাকার যুবকদের সাথে নিয়ে প্রায় এক কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের কাজ করে দিয়েছি।