সংবাদ শিরোনামঃ
দালাল বাজার ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে কাকে ভোট দিবেন? লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদপ্রার্থী কাজল খাঁনের গণজোয়ার লক্ষ্মীপুরের উপশহর দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী পাঁচজন,কে হবেন চেয়ারম্যান ? বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ওমান সুর শাখার সহ-সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেনের ঈদের শুভেচ্ছা, ঈদ মোবারক এমপি ও মন্ত্রী হতে নয় বরং মানুষের পাশে দাঁড়াতে আ.লীগ করি, সুজিত রায় নন্দী বাড়ছে ভুয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্ম্য, নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী পদক্ষেপ চাই বাড়ছে ভুয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্ম্য, নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী পদক্ষেপ চাই লক্ষ্মীপুরে বিনা তদবিরে পুলিশে চাকরি পেল ৪৪ নারী-পুরুষ দুস্থ মানবতার সেবায় এগিয়ে আসা “সমিতি ওমান ” কর্তৃক চট্টগ্রামে ইফতার সামগ্রী বিতরণ দলিল যার, জমি তার- নিশ্চিতে আইন পাস লক্ষ্মীপুরে প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে পবিত্র কুমার  লক্ষ্মীপুর সংরক্ষিত আসনের মহিলা সাংসদ আশ্রাফুন নেসা পারুল রায়পুরে খেজুর রস চুরির প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধকে মারধরের অভিযোগ লক্ষ্মীপুরে আলোচিত রীয়া ধর্ষণের বিষয়ে আদালতে মামলা তিনশ’ বছরের ঐতিহাসিক ‘খোয়াসাগর দিঘি’র নাম পরিবর্তনের কোন সুযোগ নেই, জেলা প্রশাসক’
জিডির তদন্তে থানায় ডেকে নারীকে শ্লীলতাহানী, এসআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা

জিডির তদন্তে থানায় ডেকে নারীকে শ্লীলতাহানী, এসআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা

বিশেষ প্রতিনিধি -সাধারণ ডায়েরির তদন্তে এক নারীকে থানায় ডেকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগে বরিশাল কোতোয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আসাদুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গত ২৪মে বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে এই মামলা করেন নগরীর সাগরদী ধান গবেষণা এলাকার বাসিন্দা ওই নারী। তবে বিষয়টি ৩১মে সোমবার জানাজানি হয়। গত ১৬ অক্টোবর কোতোয়ালী মডেল থানার একটি কক্ষে ডেকে নিয়ে উপ-পরিদর্শক আসাদুল তার শ্লীলতাহানী করেন বলে মামলায় অভিযোগ করেন ওই নারী।

ওই নারী জানান, কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম মৌখিক অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেয়ার এতদিন মামলা দায়ের করেননি তিনি। গত ২৪ মে আদালতে মামলা করলেও পুলিশের চাপের কারণে প্রকাশ করেননি তিনি।

আদালতে ওই নারীর আইনজীবী আসাদুজ্জামান হাওলাদার বলেন, ২৪ মে মামলা দায়েরের পর আদালত অভিযোগটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রতিবেশীর সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে গত ২৭ সেপ্টেম্বর ওই নারী কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। ডায়েরি তদন্তের দায়িত্ব পান কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আসাদুল। ট্রাইব্যুনালে দায়ের হওয়া মামলার অভিযোগে ওই নারী উল্লেখ করেন, গত ১৬ অক্টোবর সাধারণ ডায়েরি তদন্তের জন্য তাকে থানার একটি কক্ষে ডেকে নেয় উপ-পরিদর্শক আসাদুল। নানা অজুহাতে তাকে দীর্ঘ সময় বসিয়ে রাখে সে। এক পর্যায়ে সে ওই নারীর স্পর্শকাতার স্থানে স্পর্শ করে এবং ঘাড়ে চুমু দেয় বলে মামলায় উল্লেখ করেন তিনি।

বিষয়টি ওই দিন ওসি মো. নুরুল ইসলামকে মৌখিকভাবে জানানো হয়। তিনি নারী উপ-পরিদর্শক রুমা পারভীনকে দিয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। গত ২৩ মে রুমা পারভীনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি তাকে জানান, ওসি এ সংক্রান্ত কোনো নির্দেশ তাকে দেননি। থানায় মামলা দিতে চাইলে ওসি এজাহার গ্রহণ করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। বাধ্য হয়ে ওই নারী আদালতে মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত আসাদুল ইসলাম বলেন, জিডির তদন্ত প্রতিবেদন মন মতো না হওয়ায় তাকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা চলছে। কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগের বিষয়ে বিভাগীয় তদন্ত হচ্ছে।

জেলা পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার হুমায়ন কবীর জানান, পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শ্লীলতহানির অভিযোগ তদন্ত সংক্রান্ত আদালতের আদেশ ৩১ মে সোমবার পর্যন্ত তিনি পাননি। পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।